এমএস ওয়ার্ড বলতে কি বুঝায়
এমএস ওয়ার্ড বলতে কি বুঝায়

এমএস ওয়ার্ড বলতে কি বুঝায় এবং Ms-word এর কাজ কি?

আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা। আশা করি সবাই ভাল আছেন সুস্থ আছেন। আজকে আমি আপনাদের সামনে নতুন একটি টপিক নিয়ে হাজির হলাম। সেটা হলো এমএস ওয়ার্ড বলতে কি বুঝায় এবং এমএস ওয়ার্ড এর কাজ কি?

এমএস ওয়ার্ড এর সম্পূর্ণ রূপ নিচ্ছে মাইক্রোসফট ওয়ার্ডে 2010 সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। এবং এটি খুবই জনপ্রিয় ওয়ার্ড প্রসেসিং সংরক্ষণ এর গুরুত্বপূর্ণ সফটওয়্যার জনপ্রিয়। একটি সফটওয়্যার যেটি মাইক্রোসফট কর্পোরেশন দ্বারা নিয়ন্ত্রিত হয়।  বর্তমানে আমরা প্রায় সব ধরনের লেখালেখির কাজে ব্যবহার দ্বারা করে থাকি । এবং লেখালেখির সম্মেলনের মাধ্যমে সরকারকে জনপ্রিয় মাধ্যম বলে ঘোষণা করা হয়। 

মাইক্রোসফট ওয়ার্ড কেন ব্যবহার করা হয়

মাইক্রো ওয়ার্ড সফটওয়্যার ব্যবহার করা হয় বিভিন্ন ধরনের লেখালেখি কাজের জন্য সুবিধার্থে ব্যবহার। এটি একটি ওয়ার্ড প্রসেসিং সফটওয়্যার দিয়ে সফটওয়্যার। এর মাধ্যমে আমরা সকল ধরনের ডাটা সংগ্রহ করতে পারি। উনিভর্সিটি প্ল্যাটফর্ম এর মাধ্যমে কিংবা একটি ফাইল এর মাধ্যমে সবকিছু সংরক্ষণ করতে পারে।  

এই সফটওয়্যার এর মাধ্যমে বিভিন্ন ধরনের কাজ সম্পাদন করা যায়। যেমন হচ্ছে যে আমরা আমাদের আশেপাশে যে কোন ব্যক্তির কর্মকান্ডের একটি প্রতিলিপন তৈরি করতে পারি। শেষে নিউজ সংবাদ কিংবা যে কোন কিছুর লিখে রাখতে পারি। তাছাড়া আমাদের দৈনন্দিন জীবনের একটি রুটিন লিখতে পারে। 

 

এমএস ওয়ার্ড বলতে কি বুঝায়
এমএস ওয়ার্ড বলতে কি বুঝায়

মাইক্রোসফট ওয়ার্ড সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে কি করা যায়?

মাইক্রো সফটওয়্যার যার মাধ্যমে ডাটা এন্ট্রির কাজ করা হয়।  এই সফটওয়ারের মাধ্যমে আপনি কম্পিউটার প্রজেক্ট,  ড্রয়িং ,কম্পজ ছোটখাট ডিজাইন করা , বই তৈরি করা।ছোট খাট ডিজাইন তৈরি করা ,দলিল তৈরি করা , চিঠিপত্র লেখার , পরীক্ষার প্রশ্ন তৈরি করা। সেইসাথে নিজের দোকান কিংবা ব্যবসা-বাণিজ্যের সম্পূর্ণ পরিস্থিতি এবং সময়সীমা লিখে রাখা। নিজের ব্যক্তিগত তথ্য লিখে রাখতে পারি সফটওয়্যারটি ব্যবহার করে। 

মাইক্রোসফট ওয়ার্ড সফটওয়্যার ব্যবহার

আমরা যারা নতুন যারা আগে কখনও মাইক্রোসফট ওয়ার্ড সফটওয়্যার টি ব্যবহার করেনি তাদের জন্য।  আর আমরা যারা মাইক্রোসফট ওয়ার্ড টি ব্যবহার করেছি। তারা অবশ্যই জানে যে মাইক্রোসফট ওয়ার্ড টি কিভাবে ব্যবহার করতে হয় এবং এতে কি কি ফিচার রয়েছে। 

তাছাড়া এটির মাধ্যমে আমরা কি করতে পারি কি কি করতে পারে না এবং এর উপকারিতা কিসের সাথে এবং এর অপকারিতা কী ? তাছাড়া আরও অনেক ধরনের বিষয়বস্তু রয়েছে। যা আমরা ব্যবহার করি করেছে তারা অবশ্যই জানি।  

এছাড়া মাইক্রোসফট ওয়ার্ডের মাধ্যমে অনেক ধরনের রয়েছে। গুলো ব্যবহার করে আমরা খুব সহজে ভাইরাস সম্পর্কে সম্যক ধারণা নিতে পারি। তাছাড়া এই সফটওয়্যার এর মধ্যে এমন কিছু শর্টকাট টেকনিক ইউজ করা হয়। যেন দেখা যায় যে , আমাদের কাজ করার গতি আরো বেরে যায় এবং আমরা খুব সহজেই আমাদের কাজ খুব দ্রুত ভাবে আমাদের কাজ সম্পাদন করতে পারে। 

মাইক্রোসফট ওয়ার্ড সফটওয়্যার টি ব্যবহার করার নিয়ম 

প্রথমত আমরা যারা নতুন তারা মাইক্রোসফট ওয়ার্ড সফটওয়ারটি ওপেন করার সাথে সাথে একটিভ ব্ল্যাংক পেজ তৈরি হয়ে যাবে।  তাছাড়া আরও অনেক ধরনের অপশন রয়েছে এমএস ওয়ার্ডের মধ্যে।  আবার অনেক সময় দেখা যায় যে সফটওয়্যারটি ওপেন করার সময় অনেকগুলো টেমপ্লেট শুরু করে যে সকল পেজগুলি ব্যবহার করে আমাদের কাজটি খুব দ্রুত ভাবে সম্পাদন করতে পারে।  এবং আমাদের কাজের মধ্যে কোন ধরনের ত্রুটি থাকে না তাই আমরা যারা না কিছু ওয়ার্ড এক্সপার্ট তারা অবশ্যই সেই সকল ট্যাবলেটগুলো ব্যবহার করে থাকি নিজের সুবিধার্থে। 

তাই কথা না বাড়িয়ে মূল কথা হলো,  যখন মাইক্রোসফট ওয়ার্ড সফটওয়ারটি ওপেন করা হয়। তখন  ব্ল্যাংক পেজ শো করে।  সেই ব্ল্যাংক পেজ এর মধ্যে একটি দাগ নির্ভুলভাবে অন অফ হতে থাকে। সেটাকে আমরা কার্সার বলে থাকে। আরে কার সাথে কে যখন কোন কিবোর্ডে কোন শব্দ অথবা কোন ওয়ার্ড কিংবা কোন সুইচ বাটন টিপলে।

তখন ব্ল্যাংক পেজ এর মধ্যে অনেকগুলো ওয়ার্ড সো হতে থাকে। এভাবেই মূলত কিবোর্ড এর মাধ্যমে। আমরা প্লাস্টিকে অনেকগুলো ওয়ার্ড এর সমন্বয়ে তৈরি করে। একটি কনটেন্ট তৈরি করে নিতে পারে। 

মাইক্রোসফট ওয়ার্ড নিয়ে আরো ব্যাখ্যা সহকারে আরেকটি দল নিয়ে আসবো আপনাদের জন্য।  আর যারা মাইক্রোসফট ওয়ার্ড এর কোন অপশন কিংবা কোন ধরনের শর্টকাট টেকনিক সম্পর্কে জানতে চান । তারা অবশ্যই কমেন্ট বক্সে কমেন্ট করে নিবেন।  সেই সাথে আমাদের সাইটটি প্রতিদিনই ভিজিট করবেন । নতুন নতুন টপিক পাওয়ার জন্য।  তাছাড়া আমাদের কন্টাক্ট যদি কোন ধরনের প্রবলেম হয়ে থাকে । অবশ্যই আমাদেরকে জানাবেন। 

তো বন্ধুরা সে পর্যন্ত আপনারা ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন আল্লাহ হাফেজ অবশ্যই আমাদের পাশে থাকবেন। 

www.Taja1.com