বর্তমান সময়ে ব্লগিং করে কেন
বর্তমান সময়ে ব্লগিং করে কেন

বর্তমান সময়ে ব্লগিং করে কেন ?একটি সুবিধা ও অসুবিধা কি হতে পারে?

ব্লগিং করে কেন: আসসালামুআলাইকুম বন্ধুরা আশা করি সবাই ভাল আছেন সুস্থ আছেন।  আমি ভালো আছি সুস্থ আছি। আজকে আপনাদের সামনে নিয়ে আসলাম আরো নতুন একটি টপিক নিয়ে সেটি হল বর্তমান সময়ে ব্লগিং করে কেন ?একটি সুবিধা ও অসুবিধা কি হতে পারে?

ব্লগিং এর অর্থ কি ?

ব্লগিং কিংবা ব্লগ এ শব্দটি হয়তো অনেকেই পরিচিত আপনার অনেক পরিচিত হন।  এ দুটি শব্দ অর্থ কিন্তু একটি অর্থ। এই শব্দটি অনেক বিশাল এটি ভূমিকা পালন করে এবং এটি অনেক সুবিধা এবং অসুবিধা রয়েছে আমরা হয়তো অনেকেই জানি না।  এর শুরু আছে কিন্তু শেষটা নিজের ইচ্ছে হয়ে থাকে।  অনেকের মনে প্রশ্ন জাগতে পারে যে নিজের ইচ্ছায় কেন ব্লগিংটা শেষ হয়? সেটি অবশ্যই আপনাদেরকে আমি আমার কন্ঠের মাধ্যমে জানিয়ে দিব।

ব্লগ কিংবা ব্লগিং এর অর্থ কি?

ব্লগ / ব্লগিং অর্থ একটি আপনাদেরকে আমি আগেও বলেছি।  আমরা হয়তো এটি কে দুই ভাগে চিন্তা করতে পারে একটি হচ্ছে ঘোরাফেরা হচ্ছে ব্লগ এবং সেটাতে নিজের বয়স লাগিয়ে কনটেন্ট দেওয়া সুন্দরী টিপিডিএম করে তোলা হচ্ছে ভিডিও কনটেন্ট কিংবা ভিডিও ব্লগিং।  আরেকটি হচ্ছে আপনি নির্দিষ্ট কোন টেন্স এর উপরে যদি গুগলে কোন ধরনের পৌরসভা টপিক পোস্ট করে থাকেন সেটি হচ্ছে আপনার কনটেন্ট ব্লগিং।

ভিডিও ব্লগিং করে কেন ?

ভিডিও ব্লগিং বলতে আমরা অনেকে হয়তো এটি অর্থ কি ডিপেন্ড ভাবে চিন্তা ভাবনা করতে পারি। দুটি চিন্তা হয়। প্রথমত যে চিন্তাটি আমাদের মাথায় আছে সেটি হচ্ছে ইউটিউবে বিভিন্ন ধরনের ভিডিও পাপিষ্ঠ হয় এর মধ্যে অনেকগুলো ভিডিও আছে যেগুলা শুধুমাত্র মুভি দেখে অনেকে।  তাই অনেকের মধ্যে এই প্রশ্ন জাগতে পারে যে ইউটিউবে ভিডিও কন্টাক্টগুলো শুধুমাত্র যারা মুভি তৈরি করে শুধুমাত্র তাদের গুলো এখানে পাবলিস্ট হয়।

আবার কি হলো এখানে শুধুমাত্র ইউটিউবে ভিডিওকন ট্রেনিং শুধুমাত্র খানের ভিডিও পালন করতে পারে এবং তারাই এই সকল ভিডিওগুলি পাবলিশ করে থাকে বিভিন্ন ধরনের মুভি এবং ট্রেনিং সং অনেক কিছু।

বর্তমান সময়ে ব্লগিং করে কেন
বর্তমান সময়ে ব্লগিং করে কেন

আপনাদের এই বিষয়টি ক্রিয়া করার জন্য আজকের এই টপিকটি।  আমাদের 99 পার্সেন্ট এর মধ্যে শুধু মাত্র 1 শতাংশ মানুষ একটি বিশ্বাস করেন যে এটি হচ্ছে তাদের কিন্তু আসলে এটি ভুল ধারণা। ইউটিউব এমন একটি প্লাটফর্ম যেখানে বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট পাবলিশড করতে পারে। আপনি কিভাবে একজন ইউটিউবার হবেন এবং ইউটিউব থেকে কিভাবে আর্নিং করবেন। ইউটিউবে কিছু শর্ত রয়েছে সে সকল শর্ত পালন করলে অবশ্যই আপনি ইউটিউব থেকে ইনকাম করতে পারবেন অবশ্যই করতে হয় সেটি নিয়ে আমি আরো আলোচনা করব। তাই আজকে এই টপিকের উপরে আর কোনো ধরনের কিছু বলা হবেনা পোল্ট্রিতে আমি ভিডিও কনটেন্ট নিয়ে আরো অনেক কিছু আপনাদেরকে আলোচনা করব।

কন্টেন ব্লগিং করে কেন ?

বর্তমানে আমরা অনেকেই ব্লগিং করে থাকি ।তারমধ্যে কনটেন্ট বলেন বলতে আমার একটি সংখ্যাকে বোঝায়। এটি হচ্ছে যেখানে একজন কনটেন্ট রাইটার ওয়েবসাইটের মধ্যে বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট আপলোড করে থাকে ।এদেরকে মূলত আমরা বলে থাকি কনটেন্ট ব্লগার কিংবা কনটেন্ট রাইটার ।

তারা বিভিন্ন ধরনের কনটেন্ট এর মাধ্যমে তাদের ব্লক সেটিকে পূর্ণ করে তোলে এবং মানুষকে সুযোগ-সুবিধা বৃদ্ধি করার জন্য অনেক ভালো মানের উন্নত মানের কনটেন্ট তৈরি করে থাকে।

একজন কনটেন্ট এর প্রধান কাজ তার আশেপাশের বিভিন্ন বিষয়বস্তুকে তার ওয়েবসাইটের কিংবা তার তৈরি নিউজের মাধ্যমে মানুষকে সচেতন করে তোলা এবং মানুষের কাজে লাগতে পারে এমন কিছু করে নেওয়া । তাছাড়া একজন কনটেন্ট রাইটার আরো অনেক কিছু চিন্তা ভাবনা করে থাকে যেন মানুষের উপকারে আসে এমন কিছু তৈরি করে থাকে । তার মধ্যে কিছু অসাধু ব্যক্তি রয়েছে যারা মানুষের ক্ষতি করার জন্য তাদের কন্টাক্ট এর মাধ্যমে এমন কিছু তৈরি করে বেলে যেটা মানুষের মান-সম্মানের প্রশ্ন দাঁড়াতে পারে ।

তাই আমাদের উচিত সুন্দর ভাবে সফল ভাবে কনটেন্ট তৈরি করা। এবং মানুষের কাজে লাগতে পারে সচেতন ভাবে সেই সকল কন্টাক্ট পাবলিশ করা. এবং কন্ঠে বিতরণী সম্পন্ন ভাবে উপস্থাপন করা হয়. সেই বিষয়ে লক্ষ্য রাখতে হবে।

তো বন্ধুরা আজকে আর নয়। আবার দেখা হবে নতুন কোন কনটেন্টে। সেই পর্যন্ত আপনারা ভাল থাকুন সুস্থ থাকুন। অবশ্যই জানা উচিত প্রতিদিনই প্রতিদিনই আমার ওয়েবসাইটে ভিজিট করবেন। কারো যদি কোন ধরনের প্রবলেম হয়ে থাকে। অবশ্যই কমেন্টে জানাবেন। যাতে আমি আমার সমাধান করতে পারে। সে পর্যন্ত ভালো থাকবেন আল্লাহ হাফেজ।

www.taja1.com